টাকা ফেরত দিয়ে এসেক্সকে চমকে দিয়েছেন তামিম

Tamim Iqbal with Wife and Son

নিউজ ডেস্কঃ
ইংল্যান্ড থেকে দেশে ফিরলেও তামিম ইকবালের বিষয়টি নিয়ে তার ভক্তদের মাঝে এখনও বাড়তি আগ্রহ। ১২ জুলাই (বুধবার) বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে পাঁচটায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছান তামিম।

এ সময় গণমাধ্যমকর্মীরা তামিমের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তিনি অনাগ্রহ প্রকাশ করেন। এদিকে, ভক্তদের বাড়তি আগ্রহ থাকায় তামিমের ভেতরের অনেক কিছুই প্রকাশ পাচ্ছে। কিছু কিছু মাধ্যমে জানা যাচ্ছে, একটি ম্যাচ খেললেও তামিম ইংল্যান্ডের ক্লাবটি থেকে কোনো টাকাই নেননি। উল্টো তামিমকে টাকা দিতে চাইলেও বিনয়ী তামিম তা ফিরিয়ে দিয়ে এসেক্সকে চমকে দিয়েছেন।

ন্যাটওয়েস্ট টি-২০ ব্লাস্টে এসেক্সের হয়ে খেলতে গত শনিবার (৮ জুলাই) ইংল্যান্ডে যান তামিম। চুক্তি হয়েছিল আট ম্যাচের। নিজের প্রথম ম্যাচে কেন্টের বিপক্ষে মাত্র ৭ রান করেন। ওই একটি ম্যাচ খেলেই এবারের আসরকে বিদায় বলে দিয়েছেন!  ম্যাচপ্রতি তার পাওয়ার কথা ছিল প্রায় তিন হাজার পাউন্ড করে। অথচ এক ম্যাচ খেললেও তামিম দেশে ফিরেছেন এসেক্সের কাছ থেকে কোনো টাকা না নিয়েই! দেশে ফেরার আগে তামিম সব টাকাই ফিরিয়ে দিয়েছেন এসেক্সকে। ক্লাব কর্মকর্তাদের অনুরোধেও তিনি কোনো টাকা নেননি। তার জায়গায় নতুন কোনো ক্রিকেটারকে নিতে সব টাকাই ফেরত দেন তামিম। শুধু দেশে ফেরার বিমান ভাড়াটা ক্লাবটি দিতে পেরেছে তামিমকে। তবে, স্ত্রী আয়েশা ও ছেলে আরহামের বিমানভাড়া বহন করেছেন তামিম নিজেই।

এর আগে তামিমের দেশে ফেরা নিয়ে নাটকীয়তা দেখা দেয়। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে খবর প্রকাশ হয় নিরাপত্তাহীনতায় দেশে ফিরছেন তিনি। তবে লল্ডনে ‘হেইট ক্রাইমের’ শিকার হয়েছেন এমন খবর উড়িয়ে দিয়ে সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত কারণেই দেশে ফিরে আসছেন তিনি, নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পাতায় বিষয়টি নিশ্চিত করেন বাংলাদেশ ওপেনার। ফেসবুকে দেওয়া স্ট্যাটাসে তামিম লেখেন, ‘সমর্থক ও শুভাকাঙ্খীদের জানাতে চাই যে ব্যক্তিগত কারণে এসেক্সের সঙ্গে আমার মৌসুম সংক্ষিপ্ত করে দেশে ফিরছি। কিছু সংবাদমাধ্যম রিপোর্ট করেছে আমাদের টার্গেট করে হেইট ক্রাইমের চেষ্টা করা হয়েছে। এটি আসলে সত্য নয়।’

তামিম আরও উল্লেখ করেন, ‘ক্রিকেট খেলার জন্য ইংল্যান্ড আমার প্রিয় জায়গাগুলোর মধ্যে একটি এবং আগে চলে আসার পরও এসেক্স আমার প্রতি ছিল দারুণ সৌজন্যময়। আমাকে নিয়ে চিন্তিত হওয়ার জন্য ভক্ত ও শুভাকাঙ্খীদের ধন্যবাদ জানাই এবং ভবিষ্যতে আবারো ইংল্যান্ডে ম্যাচ খেলার অপেক্ষায় থাকবো।’

তার আগে কাউন্টি ক্লাব এসেক্সও তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে জানায়, ব্যক্তিগত কারণে দেশে ফিরে যাবেন তামিম। কিন্তু অনেক সংবাদমাধ্যম প্রকাশ করে, গত সোমবার (১০ জুলাই) রাতে নাকি তামিমের পরিবারকে অ্যাসিড ছুঁড়ে মারার চেষ্টা হয়েছে। ইংল্যান্ডে বেশ কিছুদিন ধরে ভিন্ন মত ও বর্ণের মানুষের ওপর কে বা কারা অ্যাসিড ছুঁড়ে মারছে। মহিলাদের মাথায় হিজাব থাকায় আক্রমণের শঙ্কা বাড়ছে। জানা যায়, গত ২১ জুন ইস্ট লন্ডনের বেকটনে রেশম খান ও জামিল মুক্তার নামে দু’জনের ওপর এ রকম আক্রমণের ঘটনা ঘটেছে। এর বাইরে রাস্তায় মানুষের ওপর গাড়ি তুলে দেওয়ার মতো হামলার ঘটনা তো সবারই জানা।

সুত্রঃ বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *