রোনালদিনহোকে প্রশংসায় ভাসালেন পেপ গার্দিওলা

নিউজ ডেস্কঃ
অনেকটা সময় পেরিয়ে গেছে। তবে দেরিতে হলেও শত্রু-তিক্ততা ভুলে রোনালদিনহোকে প্রশংসায় ভাসালেন পেপ গার্দিওলা। ম্যানচেস্টার সিটির স্প্যানিশ কোচ প্রশংসাই শুধু করলেন না, সংকীর্ণতার দেওয়াল আড়াল করে ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তিকে তুলে ধরলেন অন্য উচ্চতায়।

গার্দিওলা বললেন, লিওনেল মেসির আগে পর্যন্ত বার্সেলোনায় রোনালদিনহোই ছিলেন অপ্রতিদ্বন্দ্বী। সত্যিকারের মাঠের নেতা। রোনালদিনহোই পুনরুদ্ধার করেছিলেন বার্সেলোনার হারানো আত্মমর্যাদা। রোনালদিনহো জাদুতেই বার্সেলোনা ফিরে পায় বিশ্বসেরা রূপ।

গার্দিওলা সাবেক শিষ্যের স্তুতি গাইলেন বটে; তবে সেটা রোনালদিনহো আনুষ্ঠানিকভাবে ফুটবলকে বিদায় জানানোর পর। সাবেক কোচের মুখে উচ্ছ্বসিত প্রশংসা শোনার পর রোনালদিনহোর হয়তো আফসোসই হচ্ছে। অবচেতন মনেই হয়তো প্রশ্নের জাল বুনছেন, আর ক’টা দিন আগে যদি এই প্রশংসাটা করতেন!
নিউজ ডেস্কঃ
শুধু রোনালদিনহোর নয়, আফসোসটা হয়তো অনেক ফুটবলপ্রেমীরও। গার্দিওলা যদি এই প্রশংসাটা তিনি অবসর নেয়ার আগে করতেন, কে জানে, রোনালদিনহো হয়তো নতুন করে ক্যারিয়ার শুরু করার অনুপ্রেরণাও পেয়ে যেতে পারতেন! বিশ্বসেরা রোনালদিনহোর ‘অন্ধকারে’ হারিয়ে যাওয়ার শুরুটা যে হয়েছিল এই গার্দিওলার সঙ্গে তিক্ততার মধ্য দিয়েই!

২০০৩ সালে পিএসজি ছেড়ে বার্সেলোনায় যোগ দেন রোনালদিনহো। দলে যোগ দিয়েই পায়ের মোহনীয় জাদুতে বার্সেলোনাকে নতুন করে জাগিয়ে তুলেন রোনালদিনহো। ক্লাবকে দুইবার লিগ, একবার চ্যাম্পিয়ন্স, দুইবার সুপার কোপা ডি এস্পানার শিরোপা জেতানো রোনালদিনহো হয়ে উঠেন বার্সেলোনার প্রতীক।

ঠিক তখনোই ছিঁড়ে যায় ক্লাব বার্সেলোনার সঙ্গে দুই বারের ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার জেতা রোনালদিনহোর নিবিঢ় সম্পর্কের বন্ধন। বার্সার-রোনালদিনহোর সম্পর্কের সুতোটা ছিঁড়ে দেন আসলে পেপ গার্দিওলা!

২০০৮ সালে বার্সেলোনার মূল দলের কোচের দায়িত্ব নিয়েই নিজের বিস্ময়কর এক পরিকল্পনার কথা জানান গার্দিওলা। দায়িত্ব নিয়েই তিনি ঘোষণা করেন, তার পরিকল্পনায় রোনালদিনহো নেই! রোনালদিনহো তার পরিকল্পনার সঙ্গে যায় না!

শুধু তাই নয়, বিশ্বসেরা রোনালদিনহোকে এসি মিলানের কাছে বিক্রিও করে দেন গার্দিওলা! সম্পর্কের তিক্ততায় জড়িয়ে এই ক্লাব বদলই ঘুরিয়ে দেয় রোনালদিনহোর ক্যারিয়ারের বাক। হতাশা থেকেই কিনা বিশ্বসেরা রোনালদিনহোর মননে এক নম্বর পছন্দের বিষয় হয়ে উঠে মদ, নারী ও নৈশক্লাব। যার সঙ্গে সম্পর্কটা তার আত্মার, সেই ফুটবল হয়ে যায় দুই নম্বর অগ্রাধিকার।

সেই যে অন্ধকারে পা ফেলা। সেই কানা গলি থেকে আর বেরোতে পারেননি। আর তাই অনেকেই রোনালদিনহোর ‘প্রতিভা অপচয়ে’র গল্পের পেছনে গার্দিওলা ছায়া দেখেন! তিনি ওভাবে তাকে বার্সা ছাড়া না করলে হয়তো রোনালদিনহোর এমন করুণ পরিণত হতো না!

অবশেষে রোনালদিনহো বিষয়ে কথা বললেন গার্দিওলাও। তবে সেই ঘটনা নিয়ে নয়। আনুষ্ঠানিভাবে পেশাদার ক্যারিয়ারকে বিদায় জানানো সাবেক শিষ্যকে ভাসালেন প্রশংসায়। ২০১৫ সালের পর থেকেই পেশাদার ফুটবলের বাইরে থাকা রোনালদিনহো সম্প্রতি আনুষ্ঠানিকভাবে ফুটবল ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছেন।

গার্দিওলা শুভকামনাও জানিয়ে রাখলেন অবসরে যাওয়া বিশ্বকাপ জয়ী তারকা রোনালদিনহোকে, ‘ভবিষ্যতের জন্য শুভকামনা। ও দুর্দান্ত ভূমিকা রেখেছে, আর সেটা শুধু বার্সেলোনা নয়, গোটা ফুটবল বিশ্বের জন্যই।
সুত্রঃ Breakingnews.com.bd