বাংলাদেশ

সরকারি হলো ১২ মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ

দেশের ১২টি বেসরকারি উচ্চমাধ্যমিক মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজকে সরকারিকরণ করা হয়েছে।  এ বিষয়ে আজ সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) প্রজ্ঞাপন জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ। এসব কলেজে কর্মরত শিক্ষকরা অন্য কোথাও বদলি হতে পারবেন না বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়।

সরকারি কলেজগুলো হলো- রাজধানীর মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, রূপনগর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, লালবাগ মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, শ্যামপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, চট্টগ্রাম মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, রাজশাহী মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বরিশাল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, খুলনা মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, সিলেট মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ড মডেল কলেজ, যশোর শিক্ষা বোর্ড মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ।

এসব কলেজকে খুব দ্রুত সরকারি বিধি-বিধানের আওতায় এনে কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে বলে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়।

ইনসেপ্টার ৩০ লাখ টাকা ত্রাণের ২৭ লাখই আত্মসাৎ

কুড়িগ্রামে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য দেয়া ইনসেপ্টার ৩০ লাখ টাকা ত্রাণের সাড়ে ২৭ লাখ টাকাই আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। ত্রাণের টাকা আত্মসাতের পর থেকে ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যাল লিমিটেডের জেলা কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট সাবেক ইউপি সদস্য আত্মগোপন করেছেন। ভুক্তভোগী ৫১টি পরিবার অভিযুক্তদের শনাক্ত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে।

অভিযোগে জানা গেছে, ত্রাণ সহায়তা হিসেবে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যাল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুক্তাদির চৌধুরী কুড়িগ্রাম জেলার ভিটেমাটি হারা ৫১টি পরিবারকে দুই ক্যাটাগরিতে প্রায় ৩০ লাখ টাকা দেন। সর্বশেষ শনিবার ঘরবাড়ি মেরামতসহ মাসের খাদ্য সহায়তা হিসেবে উলিপুর উপজেলার হাতিয়া ইউনিয়নের ১০টি দুস্থ পরিবারকে ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকা করে দেন রংপুর অফিসে। প্রতারক সিন্ডিকেট চক্রটি অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে প্রত্যেককে ৪-৫ হাজার টাকা দিয়ে বাকি টাকা আত্মসাৎ করে। উলিপুর উপজেলার হাতিয়া ইউনিয়নের কুমার পাড়ার সৈয়দ আলীর স্ত্রী কাঞ্চনমালা (৩৮), ধনারবি দাসের স্ত্রী মালতি রবিদাস (৪০), নেছাব উদ্দিনের স্ত্রী আজিরন বেগম (৫২), মাহিলা বেগম (৪৫), কদমতলা গ্রামের ভগলু হোসেনের ছেলে আবুল হোসেন (৪৮), রাজেনের স্ত্রী স্বরবালা (৪৫), আবির উদ্দিনের স্ত্রী ছবিরন নেছা (৫০), অনন্তপুর ঘাটের কফুল্লা আলী (৭০), পালপাড়ার মোহনের স্ত্রী ছবিতা রাণী দাস (৫২) ও তাঁতীপাড়ার কানুর স্ত্রী বৃন্দেশ্বরী (৭০) প্রতারণার স্বীকার হন।

কাঞ্চনবালা জানান, ‘সাহেব আলী ও একজন অফিসার একদিন এসে হামার নাম-ঠিকানা লিখি নিয়া যায়। পরে শনিবার সকালে হামার এলাকার ১০ জনকে মাইক্রোত করি রংপুর নিয়া যায়। সেখানে টাকা নিয়া হামরা গাড়িত চড়ি। সবার খামত তিন হাজার করি টাকা আর নাস্তার জন্য এক হাজার টাকা দিয়া কয় বাকি টাকা মেলা খরচ হইছে। কিন্তু সাহেব আলীক কই এটে বলে ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকা আছে। বাকি টাকা কাই নিবে। তখন সাহেব আলী বলেন, এত প্রশ্ন করলে আর কারও সাহায্য আসলে তোমাক ডাক দিমো না।

ডেপুটি সেলস ম্যানেজার আমিনুল ইসলাম জানান, আমাদের এমডি স্যার সাহায্য-সহযোগিতা করেন ঠিকই। তবে কাকে কত করে সাহায্য করেছেন তা বলা মুশকিল। তিনি যেভাবে দান করেন তাতে মোটা অংকের টাকাই থাকে। তবে কতজনকে কত টাকা বিতরণ করা হয়েছে এটা কুড়িগ্রামের এরিয়া ম্যানেজার মাইনুল ইসলাম ও রংপুরের আজাদ সাহেব বলতে পারবেন। কেউ যদি টাকা আত্মসাৎ করে থাকেন তাহলে স্যারকে বলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যাল লিমিটেডের রংপুর ডিস্ট্রিবিউশনে কর্মরত আবুল কালাম আজাদ জানান, এমডি কবে এবং কতজনকে টাকা দিয়েছেন তা আমার জানা নেই। ডিস্ট্রিবিউশনের দায়িত্বে থাকায় এ বিষয়ে কোনো কিছু বলতে পারব না। এ বিষয়ে কুড়িগ্রামের এরিয়া ম্যানেজার মাইনুল সাহেব সব জানেন। কুড়িগ্রামের দায়িত্বে থাকা এরিয়া ম্যানেজার মাইনুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি মোবাইলে জানান, অফিস থেকে তালিকা করে টাকা দিয়েছে। কারা তালিকা করেছে এবং কত টাকা দেয়া হয়েছে প্রশ্ন করলে তিনি ফোন কেটে দিয়ে বন্ধ করে দেন।

হাতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বিএম আবুল হোসেন বলেন, এ ঘটনা শোনার পর আমি সাহেব মেম্বারকে ফোন দিলে তিনি জানান, ৫০-৬০ হাজার টাকা নয়, ১০ হাজার টাকা ছিল প্রতি খামের মধ্যে। জনপ্রতি ৪ হাজার টাকা দেয়া হয়েছে। বাকি টাকা যাতায়াত এবং অন্যান্য খরচ বাবদ কেটে নেয়া হয়।

ঢাকা মেট্রো-গ-১৪১১৮৮ নাম্বারের মাইক্রোবাসের ড্রাইভার আনোয়ারুল জানান, শনিবার সকালে সাহেব আলী আমার মাইক্রোটি রংপুর যাওয়া-আসার জন্য দু’হাজার টাকায় ভাড়ায় নেন। সন্ধ্যার দিকে ফেরার পথে সাত মাথার ওখানে এসে খাবারের জন্য আমাকে ১২০ টাকা দেয়। তখন আমি খেতে যাই। এ সময়ে গাড়িতে টাকা ভাগাভাগির ঘটনা ঘটলেও আমি বিস্তারিত কিছু জানি না।

সুত্রঃ jugantor

রোহিঙ্গা হত্যার প্রতিবাদে আ.লীগ-বিএনপি এক মঞ্চে

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার প্রতিবাদ এবং নির্যাতন বন্ধের দাবিতে সিলেটে এক মঞ্চে বক্তব্য দিলেন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির শীর্ষ নেতারা। উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় পার্টি, খেলাফত মজলিস, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের নেতারাও।

শুক্রবার (১৫ সেপ্টেম্বর) জুম্মার নামাজের পর নগরীর কোর্ট পয়েন্টে মহানগর ইমাম সমিতি আয়োজিত বিক্ষোভ কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি মাওলানা শিহাব উদ্দিন।

এতে সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র ও বিএনপির প্রভাবশালী নেতা আরিফুল হক চৌধুরী, আওয়ামী লীগের মহানগর সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরানসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন এবং ইমাম সমিতির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা বক্তব্য রাখেন।

এরআগে সর্বস্তরের তৌহিদি জনতার নগরীর বিভিন্ন মসজিদ থেকে মিছিল নিয়ে কোর্ট পয়েন্টে এসে জড়ো হন মুসল্লিরা। ফলে মুহূর্তেই হাজারো জনতা উপস্থিত হয়। যান চলাচলও বন্ধ করে দেয়া হয় কোর্ট পয়েন্ট সড়কে। এসময় প্রতিবাদী জনতা অং সান সুচির কুশপুত্তলিকাও দাহ করেন।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, সংকট নিরসনে বাংলাদেশ সরকারকে মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের শরণার্থীর মর্যাদা দিতে হবে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল মুসলিম দেশ থেকে মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করে কুটনৈতিক সর্ম্পক ছিন্ন করতে হবে।

বক্তারা বলেন, মুসলিম রোহিঙ্গাদের রক্ত নিয়ে হুলিখেলা বিশ্বের মুসলিম আর সহ্য করবে না। রোহিঙ্গা মুসলিমদের প্রতি ফোটা রক্তের দাম মিয়ানমারের খুনি সরকার এবং জাতিসংঘকে দিতে হবে।

নেতারা বলেন, মিয়ানমারে মুসলিম গণহত্যা অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। এই অমানবিক গণহত্যা প্রতিরোধে আন্দোলন গড়ে তোলা এখন সময়ের দাবি। মিয়ানমারের নিরীহ মুসলিমদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য দেশের সর্বস্তরের মানুষের প্রতি আহবান জানান। প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের পাশে গিয়ে দেখে আসায় ও তাদের সহযোগিতা ঘোষণা করায় ধন্যবাদ জানান।

এদিকে, বন্দরবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সামনে থেকে বের হওয়া হেফাজতে ইসলামের মিছিলটিও সিলেট সিটি পয়েন্টে এসে সমাবেশে মিলিত হয়। অন্যদিকে, রোহিঙ্গা নির্যাতনের প্রতিবাদে শুক্রবার সিলেটের বিভিন্ন উপজেলা সদরেও বিক্ষোভ হয়েছে।

সুত্রঃ http://www.breakingnews.com.bd/bangla/all-bd-divisions/37336.online

চার বছর পর আশরাফুলের সেঞ্চুরি


নিউজ ডেস্কঃ
বিপিএলে স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে তিন বছরের বহিষ্কারাদেশ কাটিয়ে গত বছর জাতীয় লিগ দিয়ে ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরেছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল। কিন্তু ফেরাটা স্মরণীয় করে রাখতে পারেননি জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক। ৫ ম্যাচে রান ১২৩, সর্বোচ্চ ৩৯। বাজে খেলায় দল থেকে বাদ পড়ার অভিজ্ঞতাও তাঁর হয়েছিল। এবার জাতীয় লিগে শুরুটা করেছেন দুর্দান্ত। চার বছর পর যেকোনো ধরনের ক্রিকেটে প্রথম সেঞ্চুরির দেখা পেলেন আশরাফুল।

আশরাফুলের সেঞ্চুরিতে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে চট্টগ্রামের বিপক্ষে প্রথম দিনে ভালো অবস্থানে আছে ঢাকা মহানগর। ৫ উইকেটে তাদের রান ২৫৪। মেহেদী হাসান রানার বলে উইকেটকিপার সাব্বিরের ক্যাচ হওয়ার আগে আশরাফুলের রান ১০৪। ফেরার আগে পঞ্চম উইকেটে মেহরাব হোসেন জুনিয়রের সঙ্গে আশরাফুল গড়েছেন ১৭৪ রানের জুটি। মেহরাব অপরাজিত আছেন ৬৫ রানে।

ফিক্সিংয়ের দায়ে নিষিদ্ধ হওয়ার আগে যেকোনো ক্রিকেটে আশরাফুল সর্বশেষ সেঞ্চুরি করেছিলেন ২০১৩ সালের মার্চে, গল টেস্টে। আর ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তাঁর সর্বশেষ তিন অঙ্ক ছোঁয়া ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে। বগুড়ায় বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে (বিসিএল) উত্তরাঞ্চলের বিপক্ষে মধ্যাঞ্চলের হয়ে করেছিলেন ১৩৩ রান।
নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরার পর জাতীয় লিগে ভালো করতে পারেননি বলে সর্বশেষ বিসিএলে সুযোগ মেলেনি আশরাফুলের। এবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ দিয়ে ফিরেছিলেন একদিনের ম্যাচে। কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের হয়ে টানা সাত ম্যাচে ব্যর্থ হওয়ার পর অষ্টম ম্যাচে পেয়েছিলেন ফিফটি। প্রিমিয়ার লিগে ১০ ম্যাচে ২ ফিফটিতে করেছিলেন ২৪০ রান।

তবে মরচে পড়া ব্যাটে যে ধার ফিরেছে, সেটা এবার জাতীয় লিগের প্রথম দিনেই বোঝালেন আশরাফুল। অবশ্য হঠাৎ জ্বলে উঠে হারিয়ে যাওয়াও তাঁর জন্য নতুন নয়। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার প্রায় অসম্ভব যে স্বপ্ন তিনি দেখছেন, তার জন্য ধারাবাহিক তাঁকে হতেই হবে। ৩৩ বছর বয়সী আশরাফুল নিজেও সেটি সবচেয়ে ভালো জানেন।

সুত্রঃ prothom-alo

বিএনপির ত্রাণ বিতরণে বাধা, খালেদা জিয়ার নিন্দা

রোহিঙ্গাদের জন্য বিএনপির ত্রাণ বিতরণে ‌বাধা দেওয়ার নিন্দা জানিয়েছেন বিএনপির চেয়াপারসন খালেদা জিয়া। আজ বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে এ নিন্দা জানান তিনি।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশছাড়া রোহিঙ্গাদের জন্য বিএনপির ত্রাণে সরকারের ‌বাধা রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার স্বার্থান্ধ অপব্যবহার। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই।’ এ সময় তিনি ‘BNPforRohingya’ হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করেন।

গতকাল বুধবার মির্জা আব্বা‌সের নেতৃ‌ত্বে ২২টি ত্রাণের ট্রাক রো‌হিঙ্গা‌দের সাহা‌য্যের জন্য কক্সবাজা‌রে যায়, কিন্তু পু‌লিশ সেই বহর আট‌কে দেয়।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর দমনপীড়নের মুখে চার লাখ রোহিঙ্গা সীমান্ত পাড়িয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। বাংলাদেশ সরকারসহ বিভিন্ন দেশ ও প্রতিষ্ঠান তাদের সহায়তায় ত্রাণ নিয়ে যাচ্ছে কক্সবাজারের আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে।

রোহিঙ্গারা আমাদের মেহমান: রওশন এরশাদ

নিউজ ডেস্কঃ
‘রোহিঙ্গারা আমাদের মেহমান, আমাদের গেস্ট। তবে তাদের ফিরে যেতে হবে।’ চলমান রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে সোমবার জাতীয় সংসদে সাধারণ আলোচনায় এসব কথা বলেন বিরোধী দলীয় নেত্রী রওশন এরশাদ।

এছাড়া সংসদের কার্যপ্রণালী বিধির ১৪৭ ধারায় চলমান রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আলোচনার প্রস্তাব দেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনি। সংসদে রওশন এরশাদ বলেন, ‘স্রোতের মতো রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে অনুপ্রবেবশ করছে। এর স্থায়ী সমাধান দরকার। এজন্য সময়ও দরকার। স্রোতের মতো রোহিঙ্গার আসছে, অস্ত্র, মাদক, সন্ত্রাসীও ঢুকে যেতে পারে। এ বিষয়ে আরও নজর দেওয়া দরকার। রোহিঙ্গা বা মুসলিম হিসেবে নয়, মানুষ হিসেবে আমরা তাদের আশ্রয় দিয়েছি।’ কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নের দাবিও জানান রওশন এরশাদ।

তিনি বলেন, ‘রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধে কূটনৈতিক তৎপরতা চালাতে হবে। ’সংসদ সদস্য শিরিন আখতার বলেন, ‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিএনপি সরকারের সমালোচনা করেছে। তারা (বিএনপি) বলছে, সরকার ব্যর্থ। আসলে সরকার ব্যর্থ নয়। ’

সংসদ সদস্য আব্দুল মতিন খসরু বলেন, ‘কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়ন হওয়া উচিত। রোহিঙ্গাদের মুসলামন নয়, মানুষ হিসেবে দেখতে চাই। ’

টেস্ট দল ঘোষণা, ফিরলেন মাহমুদউল্লাহ নেই সাকিব-নাসির

নিউজ ডেস্কঃ
দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্য শক্তিশালী দল ঘোষণা করা হয়েছে। দেশটির সিমিং উইকেটের কথা ভেবে দলে পাঁচজন পেসার নেওয়া হয়েছে।

দলে ফিরেছেন মাহমুদউল্লাহ, শুভাশিস রায় ও রুবেল হোসেন। তবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলা সবশেষ দল থেকে বাদ পড়েছেন নাসির হোসেন। বিশ্রাম চাওয়ায় টেস্ট স্কোয়াডে নেই সাকিব আল হাসান। সোমবার মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন।

গত মার্চে শ্রীলঙ্কা সফরে গলে প্রথম টেস্টে খেলার পর দ্বিতীয় টেস্টে বাদ পড়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ। খেলতে পারেনি ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে। সাকিবের অনুপস্থিতিতে একজন অলরাউন্ডারের ঘাটতি পূরণের জন্য তাকে দলে ফেরানো হয়েছে।

মাহমুদউল্লাহর ফেরার বিষয়ে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন বলেছেন, ‘যেহেতু সাকিব নেই, সেক্ষেত্রে মাহমুদউল্লাহর মতো একজন অলরাউন্ডার দলের জন্য জরুরী। তাছাড়া বিদেশের মাটিতে মাহমুদউল্লাহর পারফরম্যান্স ভালো। এসব বিষয় বিবেচনা করেই তাকে দলে রাখা হয়েছে।’

আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর পচেফ্স্ট্রুমে শুরু হবে প্রথম টেস্ট। টেস্টের আগে ২১ সেপ্টেম্বর থেকে বোনোনিতে দক্ষিণ আফ্রিকা আমন্ত্রিত একাদশের বিপক্ষে তিন দিনের একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ দল : তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, লিটন দাস, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, শুভাশীষ রায়, রুবেল হোসেন, শফিউল ইসলাম।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয়

নিউজ ডেস্কঃ
সকালটা ছিল পুরোপুরিই অন্যরকম। তৃতীয় দিন বিকেলের বিষণ্নতার ছোঁয়াটা ছিল সকালের মিরপুরেও। যেভাবে ইচ্ছা, সেভাবেই খেলছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার আর স্টিভ স্মিথ—অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে সেরা দুই ব্যাটসম্যান। ওয়ার্নার তো আগের দিন বিকেলেই ৭৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। স্মিথও জমে গেছেন উইকেটে। কোনো আশা কী ছিল!

মিরপুরের দর্শকের হতাশ করে এই দুই ব্যাটসম্যান দিনের প্রথম ঘণ্টাতেই তুলে নিলেন ৬৫ রান। বাংলাদেশের বিপক্ষে পাওয়া আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম ফিফটিটি সেঞ্চুরিতে (১১২) পরিণত করতে বেশি সময়ও নিলেন না। কিন্তু এর পরপরই কী যেন হয়ে গেল অস্ট্রেলিয়ার।

সাকিব আল হাসানের ঘূর্ণি দুর্বোধ্য হয়ে উঠল অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যানদের কাছে। প্রথমে সেঞ্চুরিয়ান ওয়ার্নারকে এলবির ফাঁদে ফেলে ফেরালেন সাকিব। এরপর অধিনায়ক স্মিথ—উইকেটের পেছনে তাঁর ক্যাচ নিলেন মুশফিক। জ্বলে উঠলেন তাইজুলও। পিটার হ্যান্ডসকম্বকে স্লিপে সৌম্যর ক্যাচে পরিণত করলেন। ম্যাথু ওয়েডকে এলবিডব্লু করলেন সাকিব। অ্যাশটন অ্যাগারকে নিজেই তালুবন্দী করলেন তাইজুল। প্রথম ঘণ্টায় যেখানে ব্যাটসম্যানরা স্বাচ্ছন্দ্যে খেলে যাচ্ছিলেন, সেখানে বাংলাদেশ লাঞ্চে গেল জয়ের সুবাস নাকে নিয়েই।

বিরতির সময় জোর জল্পনা-কল্পনা। বাংলাদেশ কি পারবে? গ্লেন ম্যাক্সওয়েল যে তখনো ছিলেন। কিন্তু লাঞ্চের পর প্রথম বলেই ম্যাক্সওয়েলকে সাকিব বোল্ড করলেন। বলটি নিচু হয়ে গিয়েছিল। সেটিতেই চালিয়ে প্লেডঅন ম্যাক্সওয়েল। জয়টা তখন চোখেই দেখছিল বাংলাদেশ।

কিন্তু প্যাট কামিন্স আর নাথান লায়ন চোয়ালবদ্ধ প্রতিজ্ঞা করলেন। বাংলাদেশকে জয় পেতে দেবেন না সহজেই। কামিন্স নিজের ব্যাটিং-পারঙ্গমতার পুরোটা ব্যবহার করলেন। লায়নও কম যান না। ২৯ রানের জুটি গড়লেন। কামিন্স রাখলেন মূল ভূমিকাটা। টিকে থাকতে পারবেন না দেখে বড় শটে মনোযোগী হলেন। ঝুঁকি নিয়ে কয়েকটা বাউন্ডারিও মেরে দিলেন। গ্যালারিতে তখন শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থা। জয়টা বোধ হয় ফসকেই গেল বাংলাদেশের হাত গলে। অনেকের মনে তখন ভেসে উঠছে ২০০৩ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে মুলতান টেস্টের স্মৃতি। ২০০৬ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের খেলা সর্বশেষ সিরিজের স্মৃতিও জেগে উঠছিল। সেবার ফতুল্লায় বাংলাদেশের কাছ থেকে জয় ছিনিয়ে নিয়েছিলেন রিকি পন্টিং, জয়ের সম্ভাবনা জাগিয়েও ৩ উইকেটে হেরেছিল বাংলাদেশ। চট্টগ্রামে তো এক টেলএন্ডার, জেসন গিলেস্পি কাঁদিয়ে ছেড়েছিলেন বাংলাদেশকে। কিন্তু মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে তেমন কিছু হতে দিলেন না বাংলাদেশের বোলাররা। কামিন্স-লায়ন জুটিটা চোখ রাঙিয়েছিল ঠিকই, কিন্তু স্বপ্ন হাতিয়ে নেওয়ার আগেই মিরাজের আঘাত। সুইপ করতে গিয়ে সৌম্যর দুর্দান্ত এক ক্যাচে পরিণত হলেন লায়ন। স্লিপ থেকে বাম দিকে দৌড়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে নেওয়া সৌম্যর ক্যাচটি ছিল খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

জশ হ্যাজলউড চোটগ্রস্ত। কিন্তু দলের প্রয়োজনে মাঠে নামলেন। পিঠের ব্যথায় খুব অসুবিধা হচ্ছিল তাঁর ব্যাটিংয়ে। কিন্তু কামিন্স খুব বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে হ্যাজলউডকে আড়াল করে খেলতে লাগলেন। বাংলাদেশের বোলাররা সুযোগই পাচ্ছিলেন না শেষ ব্যাটসম্যানকে বোলিং করার। সুযোগ পেলেন তাইজুল। আর তাতেই ইতিহাস গড়ে ফেলে বাংলাদেশ। তাইজুলের বলে এলবির ফাঁদে পড়লেন হ্যাজলউড। ম্যাচ শেষ। মর্নিং শোজ দ্য ডে—কথাটা মিথ্যে প্রমাণ হলো দুর্দান্তভাবেই।

এই জয়ের নায়ক সাকিবই। ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মতো ১০ উইকেট পেলেন। নিউজিল্যান্ডের কিংবদন্তি ক্রিকেটার স্যার রিচার্ড হ্যাডলির পর দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে এক টেস্টে ১০ উইকেট ও ন্যূনতম ৫০ রান করার কীর্তিটা নিজের করে নিলেন। কিন্তু ব্যক্তিগত সেই অর্জন ছাপিয়ে দুর্দান্ত এক দলগত অর্জন বাংলাদেশের। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট জয়—পবিত্র ঈদুল আজহার উৎসবে দেশের মানুষ এর চেয়ে বড় উপহার আর কী পেতে পারত!

সুত্রঃ prothom-alo.com

হজে যেতে পারছেন না ৩৯৭ জন

নানা জটিলতার পর বাংলাদেশের অধিকাংশ হজযাত্রী এবার সৌদি আরবে যাওয়ার সুযোগ পেলেও শেষ পর্যন্ত ৩৯৭ জন যেতে পারছেন না ভিসা না পাওয়ার কারণে। বেসামরিক বিমান পরিবহনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন সোমবার তার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘অনেক ঝুট ঝামেলার পরেও এ বছর ১ লাখ ২৭ হাজার ১০৩ জন হজে গিয়েছেন। যাওয়ার কথা ছিল ১ লাখ ২৭ হাজার ৫০০ জনের। সে হিসেবে ৩৯৭ জন যাত্রী ভিসা, টিকেট ও অন্যান্য সমস্যার কারণে যেতে পারছেন না।’

মন্ত্রী জানান, বিমানের শেষ হজ ফ্লাইট রোববার রাতে ঢাকা থেকে ছেড়ে গেছে। সোমবার বিকাল ৫টা ও রাত সোয়া ৮টায় সৌদি অ্যারাবিয়া এয়ারলাইন্সের দুটি ফ্লাইট রয়েছে। আটকে যাওয়া ৩৯৭ জনের মধ্যে কারও ক্ষেত্রে যদি সমস্যার সমাধান হয়ে যায়, তাহলে তারা ওই দুটি ফ্লাইট ধরতে পারবেন।

মন্ত্রী বলেন, এ বছর বিমান ৬৪ হাজার ৮৭৩ জন এবং সৌদি অ্যারাবিয়া এয়ারলাইন্স ৬২ হাজার ২৩০ জন হজযাত্রী বহন করছে।

ভিসা জটিলতা, মোয়াল্লেম ফি পরিশোধ ও বাসা ভাড়ায় বিলম্বের কারণে বাংলাদেশ বিমানের ২৪টি ফ্লাইট এবং সৌদিয়ার চারটি ফ্লাইট এবার বাতিল করতে হয়েছে।

যেসব হজ এজেন্ট এই জটিলতার জন্য দায়ী, তাদের চিহ্নিত করা হচ্ছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, এটা মূলত ধর্ম মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব। যেসব ট্র্যাভেল এজেন্ট টিকেট নিয়ে যাত্রী দেননি, তাদের লাইসেন্স আমরা বাতিল করার পদক্ষেপ নেব।

সংবাদ সম্মেলনে বিমান মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব, সিভিল এভিয়েশনের চেয়ারম্যানসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সুত্রঃ dailyjanakantha

মুশফিকের স্ত্রীকে নিয়ে পাকিস্তানিদের অশ্লীল মন্তব্য, ফেসবুকে ঝড়

বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম। তার রয়েছে অগণিত ভক্ত ও সমর্থক। দেশের বাইরেও তার অনুরাগীর সংখ্যা কম নন। আর সেকথা মাথায় রেখেই পাকিস্তানের একটি জনপ্রিয় টিভি চ্যানেল নিজেদের ফেসবুক পেজে সস্ত্রীক মুশফিকুর রহিমের ছবি পোস্ট করেছে। এরপরই টাইগার টেস্ট অধিনায়ক ও তার স্ত্রীকে নিয়ে নোংরা কমেন্ট করায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় উঠেছে।

এর কারণ মুশফিক ও তার স্ত্রীর পোস্ট করা ছবিতে পাকিস্তানি ও তাদের সমর্থকদের একের পর এক অশ্লীল মন্তব্য। অনেকেই বলেন, ছবিতে মুশফিককে তার স্ত্রীর ভাই বলে মনে হচ্ছে। কেউ কেউ আবার অশ্লীলতার সীমা ছাড়িয়ে গিয়ে আরও অশ্লীল কথা লেখেন।

এর পরেই পাল্টা জবাব দেন বাংলাদেশ সমর্থকরা। তাদের কেউ কেউ ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশের কাছে পাকিস্তানের পরাজয় স্মরণ করিয়ে দেন। একই সঙ্গে অশ্লীল মন্তব্যকারী পাকিস্তানিদের চিহ্নিত করে কড়া মন্তব্যে তাদের সমুচিত জবাব দেন মুশফিক ভক্তরা। একই সঙ্গে পোস্টের নামের বানানে ভুল রয়েছে বলে চিহ্নিত করেন তারা।

1 2 3 21