Entertainment

সংগীতশিল্পী সাবা তানি আর নেই

নিউজ ডেস্কঃ গত শতকের আশি ও নব্বই দশকের অন্যতম জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী সাবা তানি আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। আজ সোমবার সকালে উত্তরায় বাসায় বাথরুমে তাঁকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৪৯ বছর। খালাতো ভাই চিত্রনায়ক নাঈম প্রথম আলোকে সাবা তানির মৃত্যুর খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নাঈম তাঁর পরিবার নিয়ে এখন আছেন মালয়েশিয়ায়। সেখান থেকে আজ দুপুরে নাঈম জানান, এরই মধ্যে তিনি সাবা তানির মৃত্যু সংবাদ পেয়েছেন। বললেন, সাবা তানি দীর্ঘদিন যাবৎ নিম্ন রক্তচাপে ভুগছিলেন। উত্তরার বাসায় মায়ের সঙ্গে থাকতেন। গতকাল রোববার নিউ ইস্কাটনে বড় বোনের বাসায় যান মা। রাতে তিনি সেখানেই ছিলেন। কাল রাত থেকে অনেকেই সাবা তানিকে ফোন করে পাননি। শেষে আজ সকালে বাসার কেয়ারটেকারকে সঙ্গে নিয়ে দরজা ভেঙে আত্মীয়রা বাসায় ঢোকেন। এ সময় সবাই তাঁকে বাথরুমের মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখেন। সাবা তানির মৃত্যু সংবাদ শুনে অনেকেই উত্তরায় তাঁর বাসায় ছুটে যান। তাঁর একমাত্র ছেলে এখন লন্ডনে আছেন। মৃত্যুকালে তিনি মা, দুই ভাই, দুই বোন ও এক ছেলে রেখে গেছেন। সাবা তানির জনপ্রিয় হওয়া গানগুলোর মধ্যে রয়েছে ‘কিছুক্ষণ’, ‘কোনো বৈশাখী রাতে যদি’। বাংলাদেশ টেলিভিশন ও মঞ্চে গান গেয়ে জনপ্রিয় হন তিনি। তাঁর গাওয়া কিছু গজল ওই সময় খুব প্রশংসিত হয়েছিল। তার একটি জনপ্রিয় গানঃ ‘কোনো বৈশাখী রাতে যদি’

ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড পেলেন জয়া

বিনোদন ডেস্কঃ ভারতের জিও ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড পেলেন বাংলাদেশি অভিনেত্রী জয়া আহসান। শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় কলকাতার সায়েন্স সিটি মিলনায়তনে 'জিও ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডস (পূর্ব) ২০১৮' এবারের আসরে 'সেরা অভিনেত্রী'র পুরস্কার অর্জন করেন তিনি। জয়া-ময় হয়ে উঠল 'জিও ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডস (পূর্ব) ২০১৮'-এর অনুষ্ঠান। ‘বিসর্জন’ ছবিতে অনবদ্য অভিনয়ের জন্য জনপ্রিয় ক্যাটাগরিতেই সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন অভিনেত্রী জয়া আহসান। সমালোচক ক্যাটাগরিতে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন ইশা শাহ, তার ‘প্রজাপতি বিস্কুট’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য। যদিও এই ক্যাটাগরিতেও মনোনীত হয়েছিলেন জয়া আহসান। অ্যাওয়ার্ড গ্রহণের পর জয়া বলেন, 'পুরস্কার অর্জনের চেয়ে বড় কথা, কলকাতার মানুষের স্বতঃস্টম্ফূর্ত ভালোবাসা। এই ভালোবাসা আমার কাছে অনেক বেশি আনন্দের। বাংলাদেশের মানুষের ভালোবাসার পাশাপাশি ছবিতে অভিনয়ের জন্য ফিল্মফেয়ারের মতো আসরে সেরা অভিনেত্রী হলাম, এটা অনেক গর্বের বিষয়।' জয়া এর আগে 'আবর্ত' ও 'ঈগলের চোখ' ছবির জন্য জিও ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডসে (পূর্ব) দুবার মনোনয়ন পান। জয়া ছাড়াও এবারের ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন- সেরা অভিনেতা প্রসেনজিৎ (ময়ূরাক্ষী), সেরা চলচ্চিত্র (সমালোচক) ময়ূরাক্ষী, সেরা অভিনেতা (সমালোচক) সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় (ময়ূরাক্ষী), সেরা অভিনেত্রী (সমালোচক) ঈশা সাহা (প্রজাপতি বিস্কুট), সেরা সহঅভিনেতা কৌশিক গাঙ্গুলী (বিসর্জন), সেরা সহঅভিনেত্রী মমতা শংকর (মাছের ঝোল), সেরা নবাগত পরিচালক মানস মুকুল পাল (সহজ পাঠের গপ্পো), সেরা নবাগত অভিনেতা নূর ইসলাম ও সামিউল আলম (সহজ পাঠের গপ্পো), সেরা নবাগত অভিনেত্রী রুক্মিণী মৈত্র (চ্যাম্প ও ককপিট)। বাংলাদেশ থেকে এবার আরও মনোনয়ন পেয়েছিলেন চিরকুটের সুমী ও পাভেল আরীন। মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত 'ডুব' ছবির 'আহারে জীবন' গানের জন্য সেরা সঙ্গীতশিল্পীর (নারী) মনোনয়ন পেয়েছিলেন সুমী। আর একই ছবির আবহসঙ্গীতের জন্য মনোনয়ন পেয়েছিলেন পাভেল আরীন। সুত্রঃ reakingnews.com.bd

নতুন দায়িত্ব নিলেন অপু

বিনোদন ডেস্কঃ অপু এখন আবার আগের মত আলোচিত ও জনপ্রিয়। মাঝে দীর্ঘ সময় নিজেকে আড়াল করলেও সেটা পুষিয়ে নিচ্ছেন এখন। নানা ভাবে নিজেকে যেভাবে আলোচনায় রাখছেন সেভাবেই ক্যারিয়ার আগাচ্ছেন। দুটি ছবিতে সাইন করেছেন। টিভি, রেডিওতে সাক্ষাৎকার দিচ্ছেন, জনসচেতনতা মূলক কাজ করছেন। সেই সাথে বিভিন্ন পন্যের শুভেচ্ছা দূত হিসেবেও কাজ করছেন। এদিকে অবশ্য গুঞ্জন চলছে যে শাকিবের নামে সর্বদা সমালোচনা করে নিজেকে আলোচনায় রাখছেন এই নায়িকা। এদিকে গত শুক্রবার ‘মেহজাবিন নূর নাবিলা ফ্যাশন হাউস’-এর শুভেচ্ছাদূত হয়েছেন তিনি। রাজধানীর বনানীতে অবস্থিত মেহজাবিন নূর নাবিলা ফ্যাশন হাউসের শো-রুম উদ্ধোধন করে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘মেহজাবিন ফ্যাশন হাউসের পোশাক আমি অনেক আগে থেকেই পছন্দ করি। তারা এমনিতেই ভালো প্রোডাক্ট বানায়। আর আমি সব সময় ভালো কিছুর সাথে থাকতে চাই। এই ব্র্যান্ডের অ্যাম্বাসেডর হয়ে ভালোই লাগছে।’ অপু বিশ্বাস সম্প্রতি ‘ওপারে চন্দ্রাবতী’ সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। রফিক সিকদার পরিচালিত ছবিটিতে অপুর বিপরীতে অভিনয় করবেন চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক। এর আগে দেবাশীষ বিশ্বাস পরিচালিত ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-টু’ সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন অপু। এতে তার বিপরীতে অভিনয় করবেন চিত্রনায়ক বাপ্পী চৌধুরী। সুত্রঃ breakingnews.com.bd

শাকিব কার ‘বয়ফ্রেন্ড’ বুবলী না শ্রাবন্তীর

বিনোদন ডেস্কঃ ইতিহাস ফিরে আসছে। নব্বই দশকের শেষ দিকে কলকাতায় হঠাৎ শীর্ষ নায়িকা ঋতুপর্ণার ক্যারিয়ার ভাটা পড়ে। তখন বাংলাদেশে টানা চলচ্চিত্র করে ক্যারিয়ার চাঙ্গা রাখেন তিনি। জনপ্রিয়তার সাথে পারিশ্রমিকও পান বেশ। এবার একই ঘটনা ঘটছে কলকাতার নায়িকা শ্রাবন্তীর সাথে। আপাতত টলিউডে মুক্তি পাচ্ছে না কোন ছবি। গতবছরও দেখা যায়নি তাকে। মিষ্টি হাঁসির লাস্যময়ী এই নায়িকার সংসারের সাথে ডুবেছে ক্যারিয়ারও। কিন্তু নিজেকে সক্রিয় রাখতে তিনি ব্যস্ত আছেন বাংলাদেশে। তাহাসানের বিপরীতে মুহাম্মদ মেস্তফা কামাল রাজের ‘যদি একদিন’-এর শুটিং ইতিমধ্যেই করছেন। আর এর মধ্যেই এসেছে নতুন খবর। বাংলাদেশের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়ার ‘বয়ফ্রেন্ড’ ছবিতে শাকিবের বিপরীতে দেখা যাবে শ্রাবন্তীকে। এদিকে আরও কিছু নামী পরিচালক তাকে চলচ্চিত্রে নিতে চাইছেন বলে জানা যাচ্ছে। তাহলে কী এ নায়িকা বাংলাদেশেই নিয়মিত হচ্ছেন? এই প্রশ্নের সঠিক উত্তর আগামী কিছুদিনের মধ্যেই জানা যাবে। সুত্রঃ breakingnews.com.bd

‘সিক্রেট সুপারস্টার’ এর আয় ৯০০ কোটি

বিনোদন ডেস্কঃ বলিউডের সুপারস্টার আমির খানের ছবি ‘সিক্রেট সুপারস্টার’ বলিউডে তেমন ভাল ব্যবসা করতে না পারলেও, চীনে ব্যবসার নিরিখে ছাড়িয়ে গিয়েছে ব্লকবাস্টার সিনেমা ‘পদ্মাবত’-কেও। ঘটনাটা শুনতে অদ্ভুত মনে হলেও, এটাই সত্যি! অনেকদিন আগেই চীনে রিলিজ করেছিল ‘সিক্রেট সুপারস্টার’। তারপর কেটে গিয়েছে বেশ কিছুদিন। সকলে ভেবেছিল ১০০ কোটির পর আর বেশিদূর এগোতে পারবে না এই ছবি। কিন্তু সবার সব অনুমানকে মিথ্যে করে দিয়ে এবার ৯০০ কোটি টাকার ব্যবসা করল ‘সিক্রেট সুপারস্টার’। আর সেই খবর শোনা মাত্র আনন্দে আত্মহারা হয়ে আমির ঠিক করে ফেলেছেন আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি তিনি এই আনন্দ সকলের সঙ্গে ভাগ করে নিতে একটা বিশেষ পার্টির বন্দোবস্ত করবেন। আবার এই পার্টির জন্যই নাকি ‘ঠাগস অফ হিন্দোস্তান’-এর শুটিংয়ের সময়েও পরিবর্তন এনেছেন আমির। যাতে ২১ তারিখ রাতে তিনি নিশ্চিন্তে পার্টি করতে পারেন তার জন্য ২০ ও ২১ তারিখ সারাদিন এই ছবির শুটিং করবে তার টিম। আমির খান স্বয়ং এই বিষয় নিয়ে বলেছেন, ‘চীনে গিয়ে আমি দেখেছি ওখানকার লোকজন আমাকে ভীষণ ভালবাসে। এর আগেও ‘পিকে’ এবং ‘দঙ্গল’ ওখানে খুব ভাল ব্যবসা করেছে। কিন্তু তাই বলে ‘সিক্রেট সুপারস্টার’-ও যে এত ভাল ব্যবসা করবে এটা আমার কল্পনার বাইরে ছিল। সুত্রঃ breakingnews.com.bd

অভিষেকের ক্যারিয়ার মেরামতে ঐশ্বরিয়ার অভিযান

বিনোদন ডেস্কঃ বলিউডের অনেকে ধরেই নিয়েছিলেন, অভিষেক বচ্চনের অভিনয়জীবনের বুঝি সমাপ্তি ঘটেছে। যাঁকে নিয়ে এমন ধারণা, তিনি নিজেও তেমনটাই বিশ্বাস করেছিলেন। কিন্তু হাল ছেড়ে দেওয়ার পাত্রী নন তাঁর স্ত্রী ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন। নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে এই বলিউড তারকা খুবই আত্মবিশ্বাসী। এরই মধ্যে আবার ছবির কাজ শুরু করেছেন। এবার স্বামীর ক্যারিয়ার গড়ার দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন। অভিষেকের ক্যারিয়ার মেরামত করতে উঠেপড়ে লেগেছেন। স্বামীর কাজের জন্য বড় পরিচালক ও প্রযোজকদের সঙ্গে কথা বলছেন। যেসব প্রস্তাব আসছে, সেসব ছবির চিত্রনাট্য নিজেই দেখছেন। নিজেই সিদ্ধান্ত জানাচ্ছেন। জানা গেছে, আবার ছন্দে ফিরছে অভিষেক বচ্চনের ক্যারিয়ার। অনেক বছর বড় কোনো ছবির জন্য অপেক্ষা করছিলেন তিনি। এবার সেই অপেক্ষার অবসান হলো। প্রায় এক যুগ পর আবার নায়ক চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পাচ্ছেন। প্রিয়দর্শনের ছবি ‘বচ্চন সিংহ’র প্রধান চরিত্রে অভিনয় করবেন অভিষেক বচ্চন। আগামী ৫ জুন ভারতের ধর্মশালায় ছবিটির শুটিং শুরু হবে। চিত্রনাট্যের কাজ শেষ। কমেডিনির্ভর পারিবারিক এই ছবির জন্য নায়িকা এখনো চূড়ান্ত হয়নি। প্রিয়দর্শন চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত ৩৬ বছর। ‘বচ্চন সিংহ’ তাঁর ৯৩ নম্বর ছবি। তবে পরিচালক হিসেবে এটি তাঁর ২৭ নম্বর ছবি। এদিকে অভিষেক বচ্চন ও ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনকে একই ছবিতে অভিনয়ের প্রস্তাব দিয়েছেন পরিচালক রাজেশ আর সিংহ। তবে এই তারকা দম্পতি এখনো তাঁদের সিদ্ধান্ত জানাননি। যদি তাঁরা রাজি হন, তাহলে আট বছর পর এই দম্পতিকে আবার একই ছবিতে বড় পর্দায় দেখা যাবে। ২০১০ সালে তাঁরা একসঙ্গে কাজ করেছেন ‘রাবণ’ ছবিতে। কিন্তু সাবেক বিশ্বসুন্দরী অনেক ভাবনাচিন্তা করে এখন চিত্রনাট্য নির্বাচন করেন। ঐশ্বরিয়া চান এই ছবির চিত্রনাট্যে কিছু পরিবর্তন আনতে। পরিচালক তা চান না। তাই ছবিটি এখন ঝুলে আছে। এমনকি নিজের পারিশ্রমিক নিয়েও প্রযোজকের সঙ্গে এই বলিউড সুন্দরীর আলোচনা ফলপ্রসূ হয়নি। তাই ছবিটি এগোতে পারছে না।

শাকিবের আসন্ন ৬ ছবি

বিনোদন ডেস্কঃ ২০০৬ সাল থেকে ঢালিউডে শাকিবের একচ্ছত্র আধিপত্য চললেও সাম্প্রতিক সময়ে শাকিবকে নিজে নিয়ে গেছে অনন্য উচ্চতায়। তিনি দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন দুই বাংলায়। সংসারের ঝঞ্ঝাট এড়িয়ে শাকিব এখন আর কোনো দিকে না তাকিয়ে শুধুই কাজের পেছনে ছুটছেন। ঘুরে বেড়াচ্ছেন দেশ থেকে বিদেশ একের পর এক ছবির কাজ নিয়ে। দেখে নেয়া যাক শাকিবের আসন্ন ছবির তালিকা। ‘সুপার হিরো’ শাকিব-বুবলী জুটির নতুন ছবির নাম ‘সুপার হিরো’ ছবিটি নির্মিত হচ্ছে অ্যাকশন থ্রিলারধর্মী গল্পে। ছবির শুটিং চলছে অস্ট্রেলিয়ায়। নির্মাণ করছেন আশিকুর রহমান। ‘চালবাজ’ চালবাজ নির্মাণ করেছে এসকে মুভিজ। ছবিটি পরিচালনা করেছেন জয়দ্বীপ মুখার্জী। তার সঙ্গে আছেন অনন্য মামুন। লন্ডন, ভারত, থাইল্যান্ড ও বাংলাদেশের মনোরম লোকেশনে শুট করা হয়েছে। চালবাজে রয়েছে শাকিবের সঙ্গে শুভশ্রীর মতো নন্দিত নায়িকা। ‘নোলক’ শাকিব খান ও ববি অভিনীত ‘নোলক’ সিনেমার কাজ প্রায় শেষ। ছবিটি পরিচালনা করেছেন রাশেদ রাহা। ছবিটিতে শাকিব-ববি ছাড়াও আরও দেখা যাবে ওমর সানী-মৌসুমীকে। ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া-নোয়াখাইল্যা মাইয়া’ শাকিব-বুবলী অভিনীত ও উত্তম আকাশ পরিচালিত ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া, নোয়াখাইল্যা মাইয়া’ ছবিটিও রয়েছে মুক্তির অপেক্ষায়। সম্প্রতি এই ছবিটির পোস্টার প্রকাশ পেয়েছে। এখন সেন্সরের অপেক্ষায় রয়েছে। ‘প্রিয়তমা’ হিমেল আশরাফ পরিচালিত ‘প্রিয়তমা’ ছবিটি শাকিব খানের নিজস্ব প্রযোজনা সংস্থা এসকে ফিল্মস থেকে তৈরি করা হবে। ছবির কাজ এখনো শুরু হয়নি। এতে শাকিবের নায়িকা থাকছেন বুবলী। ‘মাস্ক’ বাংলাদেশের আরাধনা এন্টারপ্রাইজ ও কলকাতার শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস যৌথভাবে ছবিটি প্রযোজনা করছে। রাজীব বিশ্বাস পরিচালিত সিনেমাটিতে শাকিবের বিপরীতে রয়েছেন কলকাতার সায়ন্তিকা ও নুসরাত।

এখনও সিঙ্গেল পপি

বিনোদন ডেস্কঃ আমার কোনোবয়ফ্রেন্ড নেই। আমি এখনও সিঙ্গেল। বয়ফ্রেন্ড থাকলে এখনও কি একা থাকতাম? বিয়ে করে ফেলতাম। বুধবার ভালোবাসা দিবসে গায়ে লাল গাউন জড়িয়ে এমন কথাই জানালেন ঢাকাই ছবির অন্যতম দর্শকপ্রিয় নায়িকা সাদিকা পারভিন পপি। এ ছাড়াও শুধুই কী বিয়ে! বাচ্চা-কাচ্চার মাও হয়ে যেতেন বলে জানালেন এ নায়িকা। ভালোবাসা দিবসে ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে এমনই খোলামেলাভাবে জানান পপি। এখন ভালোবাসার মানুষ কে প্রশ্ন রাখলে এ তারকা জানান, এখন আমার সবচেয়ে ভালোবাসার মানুষ হচ্ছে আমার মা এবং আমার বোন। তাদের নিয়েই এখন আমার ভালোবাসার পৃথিবী। পাশাপাশি এখন প্রেম চলছে সিনেমার সঙ্গেই। সিনেমার মানুষদের সঙ্গে। দিনটি যেহেতু ভালোবাসা দিবসের ছিল তাই পপির কাছে জানতে চাওয়া হয় ভালোবাসার ক্ষেত্রে কোন বিষয়গুলোর দিকে খেয়াল রাখার পরামর্শ দিবেন? উত্তরে পপি জানান, নতুনত্ব, সততা এবং আন্তরিকতার দিকেই আমি নজর দেবো। কারণ এই তিনটা জিনিস না থাকলে ভালোবাসা স্থায়ী হয় না। শুধু প্রেমিক-প্রেমিকা নয়, বন্ধু, বাবা-মা সবার সঙ্গে ভালোবাসা মজবুত রাখতে হলে এগুলো অবশ্যই থাকতে হবে। ভালোবাসা দিবসে উপহার পেতে ভালোলাগে পপির। বিশেষ করে প্রিয় মানুষের কাছ থেকে ফুল কিংবা বই পেতে বেশি ভালোলাগে বলে জানান এ তারকা। পছন্দের লেখকের তালিকায় রয়েছেন সমরেশ মজুমদার। সুত্রঃ jugantor

শাকিব এত খারাপ জানতাম নাঃ অপু

বিনোদন ডেস্কঃ আর মাত্র এক সপ্তাহ বাকি। তারপরই ডিভোর্স কার্যকর হয়ে যাবে শোবিজ জগতের এই সময়ের সবচেয়ে আলোচিত জুটি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সালিশি বৈঠকের পরেও কোনো প্রকার সমঝোতায় পৌছায়নি তারকা এক দম্পতি। গত ১৫ জানুয়ারি ডিএনসিসির অঞ্চল-৩-এর অফিসে অনুষ্ঠিত সালিশে অপু বিশ্বাস উপস্থিত থাকলেও উপস্থিত ছিলেন না শাকিব খান। তিনি অপুকে ডিভোর্স দেয়ার সিদ্ধান্তেই অটল রয়েছেন। দেরিতে হলেও শাকিবের এই সিদ্ধান্তের বিষয়ে চূড়ান্ত ক্ষোভ উগরে দিলেন স্ত্রী অপু বিশ্বাস। মঙ্গলবার বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে মনের সব জমানো কথাই বলে দিলেন তিনি। তালাকের নোটিশ পাঠানো এবং সালিশি বৈঠকে হাজির না থাকার বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে এক পর্যায়ে তিনি শাকিবের চরিত্র নিয়েও কথা বলেন। অপু বলেন, ‘শাকিবের চরিত্র খারাপ জানতাম কিন্তু এত খারাপ জানতাম না। যেসব মেয়েদের সঙ্গে তার ওঠা-বসা, আমি ভেবেছিলাম সন্তান হলে সে এই পথ থেকে সরে আসবে। কিন্তু ঘটেছে তার উল্টো। বাবা হয়ে সন্তানের স্বার্থেও সে ছাড় দেয়নি। তাকে ভালোবেসে আমি ঘর ছেড়েছি, পরিবার ছেড়েছি, ক্যারিয়ার ছেড়েছি। বিনিময়ে পেয়েছি শুধু অবহেলা আর অসম্মান।’ ডিভোর্স বিষয়ে নায়িকা বলেন, ‘শাকিব আগেই আমাকে বলেছিল, আমাদের সন্তান হলেই সে আমাকে ডিভোর্স দিয়ে দেবে। তখন আমি বিষয়টিকে গুরুত্ব দেইনি। কথার কথা মনে করেছিলাম। কিন্তু এখন বুঝতে পারছি বিষয়টা কতটা সত্যি। তবে সবাইকে তো কোনো না কোনো কিছু আঁকড়ে ধরে বাঁচতে হয়। এখন আব্রামই আমার একমাত্র অবলম্বন। তাকে নিয়েই আগামী দিনগুলো নতুন করে সাজাতে চাই।’ অপু বিশ্বাসের এই কথায় আরও একটা বিষয় পরিষ্কার। প্রথমে মানতে না চাইলেও, বেলাশেষে হার মেনেছেন তিনি। মেনে নিয়েছেন শাকিবের ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত। নায়িকার কথায়, ‘দাম্পত্য সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে হলে একে অপরের প্রতি আস্থা থাকতে হয়। মনের মিল না হলে কোনো সম্পর্ক টিকিয়ে রাখা যায় না। একজন স্ত্রীর পক্ষে যা কিছু মেনে নেয়া সম্ভব, তার সবকিছুই মানার চেষ্টা করেছি। তারপরও শাকিব তার সিদ্ধান্তে অনড় থেকেছে। সে যেটা ভালো মনে করেছে, সেটাই করেছে। আমিও তাই ডিভোর্স মেনে নিয়েছি।’ প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার ভালোবাসা দিবসের দিনেই ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের পারিবারিক আদালতে তারকা দম্পতি শাকিব-অপুর বিয়েবিচ্ছেদ নিয়ে দ্বিতীয় সালিশ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তার আগেই অপু জানিয়ে দেন, শাকিব খানের বিয়েবিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত তিনি মেনে নিয়েছেন। কাজেই, দ্বিতীয় সালিশে যাওয়ার কোনো দরকার আছে বলে তিনি মনে করেন না। আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি পূর্ণ হবে ডিভোর্স আবেদনের তিন মাস। ওই দিনই কার্যকর হবে ডিভোর্স। এদিকে, নায়ক শাকিব খান বর্তমানে ‘সুপার হিরো’ ছবির শুটিংয়ের কাজে নায়িকা বুবলীর সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ায় রয়েছেন। অপু রয়েছেন বাংলাদেশে। তিনিও সম্প্রতি দুটি ছবিতে অভিনয়ের ব্যাপারে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। একটি দেবাশীষ বিশ্বাসের ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ টু’ এবং অন্যটি হচ্ছে রফিক শিকদারের ‘ওপারে চন্দ্রাবতী’। প্রথমটিতে অপুর নায়ক বাপ্পী চৌধুরী এবং দ্বিতীয়টিতে সায়মন সাদিক। সুত্রঃ dhakatimes24

কথা রাখলেন শাহরুখ

বিনোদন ডেস্কঃ রক্তের সম্পর্ক নেই। তবুও বলিউড বাদশা শাহরুখ খান তার ছেলে। যার অভিনয় থেকে অনুপ্রেরণা , সেই প্রিয় মানুষটি বহুদিন ধরেই অসুস্থ। তাই মাঝে মাঝেই তার সান্নিধ্যে কিছু সময় কাটিয়ে আসা। তার কুশল সংবাদ নেওয়া। সোমবার নিজের আইডল দিলীপ কুমারের সঙ্গে ফের দেখা করলেন শাহরুখ খান। দিলীপ কুমারের টুইটার হ্যান্ডল থেকে অভিনেতার হয়ে মাঝে মাঝেই টুইট করেন ফয়জল ফারুকি। তিনি দিলীপ কুমারের পারিবারিক ঘনিষ্ঠ বন্ধু। সোমবার দিলীপ কুমারের সঙ্গে শাহরুখের সাক্ষাতের ছবিও শেয়ার করেছেন তিনি। সেই সঙ্গে জানিয়েছেন, ভাল আছেন দিলীপ কুমার। অভিনয় জীবনের শুরু থেকেই দিলীপ কুমার কিং খানের আইডল। শাহরুখের অভিনয়েও বহু বার স্পষ্ট হয়েছে দিলীপ কুমারের অভিনয়ের ছাপ। বিশেষ করে ‘দেবদাস’ করার সময় তার অভিনয়ে প্রবীণ তারকার অভিনয়ের প্রভাব দেখা গিয়েছিল। দিলীপ কুমারও শাহরুখকে এতটাই ভালবাসেন যে, তাকে বহু দিন আগেই ছেলে পাতিয়েছিলেন তিনি। প্রবীণ অভিনেতার স্ত্রী সায়রা বানু টুইটারে ছবি পোস্ট করে সে কথা জানিয়েছিলেন। গত বছর আগস্ট মাসে প্রায় এক সপ্তাহ ধরে মুম্বাইয়ের লীলাবতী হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন দিলীপ কুমার। ২ আগস্ট ডিহাইড্রেশন এবং মূত্রনালীতে সংক্রমণের জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল তাকে। মেডিক্যাল টিম গঠন করে চিকিৎসা হয়েছিল তার। কিছুটা শারীরিক উন্নতির পর ৯ আগস্ট হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরে যান অভিনেতা। এরপরই স্বাধীনতা দিবসের সন্ধ্যায় দিলীপ কুমারের বাড়িতে গিয়েছিলেন শাহরুখ। সেই সময়ই ছবি শেয়ার করে সায়রা বানু লিখেছিলেন, দিলীপের শাহরুখকে ‘ছেলে’ পাতানোর কথা। শাহরুখ কথা দিয়েছিলেন, মাঝে মাঝে গিয়ে দেখা করে আসবেন। সোমবার কথা রাখলেন শাহরুখ। সুত্রঃ bd-pratidin
1 2 3 12